শুক্রবার, ২0 জুলাই ২0১৮
  • হোম » উত্তরবঙ্গ » বিয়ের দাবিতে কোলকাতার মেয়ে উত্তর দিনাজপুরের ধর্নায়




বিয়ের দাবিতে কোলকাতার মেয়ে উত্তর দিনাজপুরের ধর্নায়

কলকাতা নিউজ ২৪ : 17/12/2017

IMG_20171217_190609

 

 

 

 

 

 

রায়গঞ্জ, ১৭ ডিসেম্বর : উত্তর দিনাজপুর জেলা BJP-র প্রাক্তন সভাপতি শুভ্র রায়চৌধুরির সঙ্গে তিনি লিভ টুগেদার করেছেন। তাঁর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কও রয়েছে। কিন্তু, সম্প্রতি তাঁকে অস্বীকার করছেন শুভ্র। এই অভিযোগ তুললেন কলকাতার বেহালার যুবতি গার্গী মুখার্জি। তাঁর ভালোবাসা স্বীকার করতে হবে, এই দাবিতে আজ রায়গঞ্জ শহরের উকিলপাড়ায় শুভ্রবাবুর বাড়ির সামনে ধরনায় বসেন ওই যুবতি। পরে খবর পেয়ে রায়গঞ্জ মহিলা থানার পুলিশ তাঁকে নিয়ে যায়। থানায় গিয়েও তিনি ধরনা শুরু করেন। পরে এই বিষয়ে অভিযোগ জানান পুলিশের কাছে।

যদিও শুভ্রবাবুর পরিবারের তরফে বলা হয়েছে, যদি উনি মনে করেন ঠিক বলছেন। তাহলে আইনের সাহায্য নিক। তাদের আশঙ্কা, রাজনৈতিক কারণেই শুভ্রবাবুকে ফাঁসানোর সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে আজ শহরের ব্যস্ততম এলাকায় এই এধরনের ঘটনায় উৎসুক মানুষের ভিড় জমে যায়। শুভ্র রায়চৌধুরি উত্তর দিনাজপুর জেলা BJP-র প্রাক্তন সভাপতি। পরে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সম্পাদক হন। বর্তমানে অবশ্য তিনি ফের BJP-তে যোগ দিয়েছেন। আর মুকুল রায়ের অনুগামী বলেই এলাকায় পরিচিত।

আজ সকালে রায়গঞ্জ শহরে শুভ্রবাবুর বাড়ির সামনে ধরনায় বসেন বেহালার ওই যুবতি। তিনি দাবি করেন, শুভ্রর সঙ্গে তাঁর সাড়ে তিন বছর ধরে শারীরিক ও মানসিক সবরকম সম্পর্কই রয়েছে।

তাঁর আরও দাবি, “ওর মায়ের(শুভ্র’র) সঙ্গে আগে ফোনে প্রচুর কথা হয়েছে। কিন্তু, এখন তিনি খারাপ কথা বলছেন। আমি জানি না শুভ্র কেন এখন আমাকে অস্বীকার করছে ? ওর সঙ্গে ছবি পোস্ট করাই কি আমার একমাত্র দোষ ? আমাকে ও বলেছিল যে অনেকদিন ধরে স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক নেই। ডিভোর্স প্রসেস চলছে। ওর মা-ও মানসম্মান দিয়ে ওদের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেছিলেন। আমাকে ছোটো বউ বলেও ডাকতেন। কিন্তু, উনি যে এরকম করবেন আমি তো বুঝতে পারিনি। হঠাৎ দেখলাম, সোশাল মিডিয়ায় ম্যারেড স্ট্যাটাস দিচ্ছে শুভ্র। আগে ছিল না। একজন মহিলার সঙ্গে ছবিও পোস্ট করে। তখনই বুঝতে পারলাম, নিশ্চয় আমাকে অস্বীকার করছে। আমাকে বলেছিল, বিধাননগর ফ্ল্যাটে ওর স্ত্রী থাকে। ওর সঙ্গে বসবাস করে না। যতক্ষণ না ও সামনে এসে আমার ভালোবাসাকে স্বীকার করছে ততক্ষণ আমি এখান থেকে নড়ব না। তাতে যদি আমায় মরে যেতে হয় মরে যাব।”

শুভ্রবাবুকে বাড়িতে না পাওয়া গেলেও তাঁর স্ত্রী বলেন, “ও থানায় যাক। থানা থেকে ডাকে পাঠাবে স্বামীকে। স্বামী যাবে থানায়। আমার ১৮ বছরের সংসার। উনি আজ হঠাৎ করে এসে একথা বলছেন। আমার স্বামী রাজনীতিতে আছে। সেই কারণে ফাঁসানোর চেষ্টাও হতে পারে। ওর কাছে সব প্রমাণ থাকলে বাড়িতে না এসে থানায় যাক।”

ঘণ্টা দু’য়েক ধরনায় বসে থাকার পর ওই যুবতি রায়গঞ্জ মহিলা থানায় শুভ্ররায় চৌধুরির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ৪৯৩ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সহবাস, ৩৭৬ ধর্ষণ, ৩২৩ মারধর, ৫০৬ হুমকি ও ৩৪ নম্বর ধারায় মামলা করেছে পুলিশ।

এই প্রসঙ্গে জানতে শুভ্রবাবুকে ফোনে ধরার চেষ্টা করা হলেও, তাঁকে পাওয়া যায়নি।

এর আগে রাজ্যসভার সদস্য ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের মামলা করেছিলেন বালুরঘাটের এক যুবতি। এবার তারই যেন ছায়া দেখা গেল রায়গঞ্জে।



Executive Editor: Akash Biswas
Associate Editor : Advocate Anshuman Sengupta
Address : kolkata
E-mail: [email protected]
© Copyright 2015 FILM & CRCC Computer center All rights reserved.