রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২0১৮
  • হোম » কলকাতা » নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন দেশের গর্ব ঃ রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী




নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন দেশের গর্ব ঃ রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী

কলকাতা নিউজ ২৪ : 28/01/2018

 

 

NARENDRAPUR RAMKRISHNA MISSION 75 TAMO TRI CELEBRATION MISSION ER MAHARAJDER SATHE GOVORNOR KESARI NATH TRIPATHI , MANTRI SOVAN CHATTERJEE1

কলকাতা ডেক্সঃ হাজারো আবাসিক বিদ্যালয়ের মধ্যে নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন দেশের গর্ব। রবিবার নরেন্দ্রপুর মিশনে ‘ত্রয়ী উৎসবে’ এসে একথা বললেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। নরেন্দ্রপুর মিশন আশ্রমের প্লাটিনাম জুবিলি, বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী এবং ইন্ড্রাস্টিয়াল টেকনিক্যাল সেন্টারের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব পালন হিসাবে নরেন্দ্রপুর মিশনে ‘‌ত্রয়ী উৎসবে’র আয়োজন করা হয়েছে। এদিন নরেন্দ্রপুর মিশন বিদ্যালয়ের ৬০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে কৃতী ছাত্রদের পুরষ্কার বিতরণ করা হয়েছে। রাজ্যপাল ছাড়াও এদিনের অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী ও কলকাতার মেয়র শোভন চ্যাটার্জী, রাজ্যের অতিরিক্ত সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধায়, স্বামী সুবীরানন্দ মহারাজ, স্বামী সর্বালোকনন্দজী মহারাজ, রাজপুর সোনারপুর পুরসভার চেয়ারম্যান পল্লব দাস, ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা সরকার। এদিনের আনু্ষ্ঠানে রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠী আরোও বলেন, স্বামী বিবাকানন্দের নির্দেশিত পথে মিশনে শিক্ষা দেওয়া হয়। শুধু প্রথাগত শিক্ষাই নয়, এখানের ছাত্ররা মানুষ গড়ার শিক্ষাও পায়। তাই এখানে শিক্ষিত ছাত্ররা সমাজের ভিত শক্ত করে। মন্ত্রী শোভন চ্যাটার্জী বলেন, মিশন একটা গর্বের জায়গা। তাই মিশনের কোন অসুবিধা হলে তা দূর করতে সব সময়ই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আমরা প্রস্তুত। এদিন রাজপুর সোনারপুর পুরসভার তরফ থেকে পুরসভার অন্তর্গত মিশনের প্রায় ১১৫ একর জায়গার মিউটেশান ও হোল্ডিং নম্বর দিয়ে ওই জায়গার এ্যাসেসমেন্ট সার্টিফিকেট মিশন কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। মিশনের এই জায়গাকে কর মুক্ত হিসাবে ঘোষনা করা হয়েছে। রাজ্যপাল, মেয়র এবং পুরসভার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান মিলে এদিনের মঞ্চে সেই গুরুত্বপূর্ণ কাগজ মিশনের মহারাজের হাতে তুলে দেন। মিশেনর প্রাক্তনী এবং রাজ্যের অতিরিক্ত সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধায় তাঁর বক্তব্যে মিশন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রাশাসনিক স্তরে পরীক্ষার জন্য  প্রতিষ্ঠান খোলার বিবেচনা করার কথা বলেন। মহারাজরা বিষয়টি বিবেচনা করবেন বলে জানান ত্রিপাঠী।

 



Executive Editor: Akash Biswas
Associate Editor : Advocate Anshuman Sengupta
Address : kolkata
E-mail: [email protected]
© Copyright 2015 FILM & CRCC Computer center All rights reserved.